বিয়েতে বেশ কিছু অনুষ্ঠান পালিত হয় যেখানে নাকি মা'কে থাকতে নেই, দেখতে নেই... কি অদ্ভুত নিয়ম !!
সেইদিনে নাকি মা রাক্ষসী হয়ে যায় ও রাক্ষসীর নজর লেগে যায় মেয়ের/ছেলের প্রতি তাই মা'কে থাকতে নেই (শোনা কথা, ব্যাখ্যা জানি না)। গোটা বিয়ে বাড়িতে সবাই কিসুন্দর সাজুগুজু করে, অথচ বিয়ের অনুষ্ঠান বিঘ্নিত না ঘটে তার জন্য দৌড়া-দৌড়ি করে কোথায় কি কি রাখা আছে সেসবকিছু জোগাড় করতে করতে একজনের তো আর নিজের দিকে তাকানোরই সুযোগ হয় না, তিনি হলেন মা । হ্যাঁ, গর্ভধারিনী মা তখন মেয়ের বিয়ের নানা কাজে এতটাই ব্যস্ত থাকেন যে সাজার কথা আর নিজের মাথায় থাকে না। শুধু সেদিনই না, জন্মের পর থেকে মা শুধু তার সন্তানের কথাই আগে ভাবে।

মা, প্রণাম নিও মা। সমস্ত মা'দের প্রণাম আমার🙏। এই হিন্দু শাষ্ত্রের বর্বরতার কথা জানিনা, কিন্তু মা'দেরকেই কেন সব জিনিস থেকে বিতারিত করা হয় ??? 😠 মেয়ের আশীর্বাদের সময় মা'কে দেখতে নেই, বিয়েতে শুভ দৃষ্টির সময় মা'কে দেখতে নেই, ছেলের বিয়েতে মা'কে যেতে নেই, সন্তানের অন্নপ্রাশন মা'কে দেখতে নেই... সবেতেই মা বাদ যান । কেন ?? কেন ??
যে মেয়েকে 9মাস গর্ভে ধারণ করলেন, সেই মেয়েরই ভালো দিনে নিজের চোখে ওই অমূল্য মুহুর্ত দেখার কি অধিকার তাঁর নেই !! মা'র অনুমতি ছাড়া ছেলে বিয়ে করতে যেতে পারে না অথচ মা'কে বিয়েতে যেতে নেই, গোটা বাড়ির সবাই যায় ছেলের বিয়েতে কিন্তু মা একা একা গোটা বাড়ি পাহাড়া দেয় !!! যে মা'র গর্ভে তুমি জন্ম নিলে, সে মা'কেই থাকতে নেই তোমার প্রথম ভাত খাওয়ার অনুষ্ঠানে। মা'র নাকি নজর লেগে যায়, সন্তানের শরীর খারাপ হয় তাতে... কেন শুধু কি মায়ের নজরই লাগতে পারে !! অন্য কারোর না !!! সত্যি কি বিচিত্র এই শাষ্ত্রানুষ্ঠান !!

✍ Rohit Ray

image