ব্রিটিশ আমল

Comments · 328 Views

ষোড়শ শতাব্দিতে ভারত ও পুর্ব এশিয়ায় বাণিজ্যের উদ্দেশে একদল ব্রিটিশ বণিক

ষোড়শ শতাব্দিতে ভারত ও পুর্ব এশিয়ায় বাণিজ্যের উদ্দেশে একদল ব্রিটিশ বণিক একটি জয়েন্ট‌-স্টক কোম্পানি গঠন করে। উক্ত কোম্পানির সরকারি নাম "ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি"। এ সালের ৩১ ডিসেম্বর ইংলান্ডের রাণী প্রথম এলিজাবেথ কোম্পানিকে ভারতে বাণিজ্যের জন্য রাজকীয় সনদ প্রদান করেন। এ সনদের ভিত্তিতে উক্ত কোম্পানি ২১ বছর পর্যন্ত ভারতের পুর্বাঞ্চলে বাণিজ্যের একচেটিয়া অধিকার লাভ করেছিল। উক্ত কোম্পানি ভারতের গুজরাট রাজ্যের সুরাট শহরে ১৬০৮ খ্রিস্টাব্দে মুঘল সম্রাট জাহাঙ্গীরের কাছ থেকে প্রথম বাণিজ্য কুঠির স্থাপনের অনুমতি পায়। পরে তারা হুগলি সহ ভারতের অন্যান্য শহরে কুঠির স্থান করে । সপ্তদশ শতাব্দীতে (১৬৫৮ সালে) কোম্পানির প্রতিনিধি জেমস হার্ট ঢাকা শহরে অনুপ্রবেশ করলে তার মধ্য দিয়ে বাংলায় ব্রিটিশদের আগমন শুরু হয় । ১৭১৫ সালে মোঘল দরবার হতে অনুমতি পেয়ে কোম্পানির নিজেস্ব ব্রিটিশ মুদ্রার প্রচলন শুরু করে। ১৭৩২ সালে মির্জা মোহাম্মদ আলী (আলীবর্দী খাঁওড়িশা, রাজমহল ও বিহারের ফৌজদার ও সুজাউদ্দিন মুহাম্মদ খানের প্রধান উপদেষ্টার দায়িত্ব পালনে করেন। এ সালে সম্রাট মুহাম্মদ শাহ কর্তৃক বিহারকে বাংলার সুবাদের অন্তর্ভুক্ত করেন । এ সময় পর্যন্ত সিলেট মুঘলদের নিযুক্ত নবাবগণ দ্বারা শাসিত হতো । মুর্শিদাবদের ইতিহাস গ্রন্থের বরাতে অচ্যুতচরণ চৌধুরী লিখেন; সিলেটে নিযুক্ত (১৮ নং) নাবাব শমশের খাঁ'র অধীনে সীমান্ত প্রদেশ রক্ষায় আরোও ৪ জন নায়েব সিলেটের ফৌজদারীতে কাজ করতেন। ১৭৪০ খ্রিস্টাব্দে গিরিয়ার যুন্ধ সংঘটিত হলে শমশের খাঁ সরফরজ খাঁ'র পক্ষে সসৈন্যে উক্ত যুদ্ধে অংশ নেন এবং সরফরজ খাঁ'র সাথে তিনিও সেখানে নিহ্ত হন। এদিকে মির্জা মোহাম্মদ আলী (আলীবর্দী খাঁ) জয়োল্লাসে বঙ্গের মসনদে অধিষ্ঠিত হন। তাহার আমলে সিলেট কাছার জয়ন্তীয়া প্রভৃতি অঞ্চল মুঘলদের নিযুক্ত নবাবগণ কর্তৃক শাসিত হতো । ১৭৫১ সালে (২৯ নং) নবাব নজীব আলী খাঁ নবাবী পদ প্রাপ্ত হয়ে সিলেটের শাসন পরিচালনায় নিযুক্ত হন । তাহার আমলে সিলেটের পূর্বাঞ্চলে পাহাড়ি লোক কর্তৃক নানাহ উত্পাত সংঘটিত হয় । পাহাড়ি লোকদের উত্পাত বন্ধ করতে সীমান্ত রক্ষাকারী নতুন নায়েব ফৌজদার মিরাট হতে আগমন করেন এবং মোসলমান ও খ্রিস্টান গোলান্দাজ সৈন্য বুন্দাশীল নামক স্থানে অবস্থান করেন। পাহাড়িদের আক্রমণ টেকাতে সিলেটের বদরপুরে এক বৃহত্ত দুর্গ প্রস্তত করা হয়েছিল। 

Comments